Home ফিচার অগ্নিকান্ডের ঝুঁকিতে রাজধানীর ১১ হাজার বহুতল ভবন

অগ্নিকান্ডের ঝুঁকিতে রাজধানীর ১১ হাজার বহুতল ভবন

0 108

কারিকা প্রতিবেদক
বনানীর এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকান্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো গুলশান ১ ডিএনসিসি মার্কেট সংলগ্ন কাঁচা বাজারে আগুন লেগে পুড়ে গেছে অন্তত দেড়শ’টি দোকান। ফায়ার সার্ভিস ও প্রত্যাক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে শনিবার ভোর ৫টা ৪৮ মিনিটে আগুনের সূত্রপাত হয়। রাজধানীতে আগুনের ঝুঁকিতে আছে এরকম আরও সাড়ে ১১ হাজার বহুতল ভবন। ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে, বহুতল এসব ভবনে ফায়ার সার্ভিসের ছাড়পত্র বা ফায়ার সেফটি অনুমোদন নেই। অগ্নিকান্ডের ঝুঁকি কমাতে ২০০৩ সালে অগ্নিপ্রতিরোধ ও নির্বাপন নামে একটি আইন করে সরকার। এই আইন অনুযায়ী, ঢাকা মহানগরে বহুতল ভবন নির্মাণে ফায়ার সার্ভিস থেকে ছাড়পত্র নিতে হয়। ভবনের সামনের সড়কে প্রশস্ততা, নকশা অনুসারে ভবনের অগ্নিনিরাপত্তা পরিকল্পনা,ভবন থেকে বের হওয়ার বিকল্প পথ, কাছাকাছি পানির সংস্থান এসব বিষয় পর্যবেক্ষণ করে ছাড়পত্র দেয় ফায়ার সার্ভিস। তারপর এই ছাড়পত্র দেখিয়ে রাজউক থেকে ভবনের নকশার অনুমোদন নিতে হয়। কিন্তু বাস্তবে রাজউকের পর্যবেক্ষন শিথীলতার কারণে অগ্নিনিরাপত্তা ব্যবস্থা ছাড়াই নির্মিত হচ্ছে বহুতল ভবন। রাজউকের ডিটেইল এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) এর অংশ হিসেবে ২০১৬ সালে করা এক জরিপে দেখা যায় ঢাকা মহানগর এলাকায় সাততলা বা তার চেয়ে উঁচু ভবন আছে ১৬ হাজার ৯৩০টি। কিন্তু ২০০০ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিস থেকে ছাড়পত্র নিয়েছে মাত্র ৫ হাজার ২৪টি ভবন। এর বাইরে ঢাকা মহানগর এবং সারা দেশে বাকি সব ভবনই রয়েছে অগ্নিকান্ডের ঝুঁকিতে।
দুঘর্টনা কবলিত এফ আর টাওয়ারের ক্ষতিগ্রস্থ ফ্লোরগুলো ঘুরে দেখা গেছে সেখানে অগ্নিনিরাপত্তা ব্যবস্থায় ঘাটতি ছিল। অগ্নিনির্বাপনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না থাকার পাশাপাশি বহুতল ভবনের তুলনায় সাধারণ ও জরুরী নির্গমনের সিড়িঁটিও ছিল অপ্রশস্ত। চারতলার জরুরি নির্গমন পথটিও ছিল তালাবদ্ধ।
এছাড়াও ভবনের সাজসজ্জায় দাহ্য পর্দাথ ব্যবহার করায় ভবনটিতে দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এফ আর টাওয়ারের বাইরের অংশে ব্যবহৃত কাঁচগুলোও আগুন নিরোধক নয়। ভবনটি থেকে প্রাণ নিয়ে বেঁচে ফেরা কয়েকজন জানিয়েছেন অগ্নিকান্ডের সময় ভবনটিতে কোন ফায়ার অ্যার্লাম বাজেনি। ছিলনা কোন এসেম্বলী পয়েন্টও। তাই ভবনটিতে আগুনের তীব্রতা কম থাকলেও ধোঁয়ার শ্বাস বন্ধ হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন অনেক মানুষ।

NO COMMENTS

Leave a Reply