Home মূল কাগজ আপন আবাস টিকে থাক টিনের ঘর

টিকে থাক টিনের ঘর

0 11001

সুউচ্চ ইমারতের শহর রাজধানী ঢাকার অলিগলিতে এখনও টিনের ঘরের দেখা মেলে। ছায়াঘেরা এসব বাড়ির নির্মল পরিবেশ দেখে যে-কারোর মনে হবে যান্ত্রিকতার এ শহরে, শহর বোধহয় এখানে একটু দম ফেলার ফুরসত পেল।

আবাসনে প্রতিদিনই যুক্ত হচ্ছে নিত্যনতুন প্রযুক্তি। ফলে বদলে যাচ্ছে আবাসন নির্মাণের ধাঁচ এমনকি উপকরণও। সেই গতিধারায় পিছিয়ে নেই বাংলাদেশও। নগর সভ্যতার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সাধ্যানুযায়ী এগিয়ে চলছে এ-দেশের আবাসন-সংস্কৃতি। এত কিছুর হাতছানি সত্ত্বেও দেশটির আদি ঐতিহ্য নিয়ে মাথা গোঁজার ঠাঁই হিসেবে এখনও টিকে আছে টিনের ঘর। অনেকের কাছে এখনও বসবাসে আয়েশী জীবনের জন্য টিনের ঘরের বিকল্প নেই।

তাকে সবাই চেনে চন্দ্রা ছৈয়াল নামে। পুরো নাম চন্দন সূত্রধর। বয়স ষাটের কোটায়। বাড়ি নরসিংদীর শহর এলাকায়। দু’যুগ আগে ভীষণ ব্যস্ত ছিলেন টিনের ছাউনির কাঠ খেউরি ঘর বানানোতে। এখন সে কাজে ভাটা। রোজগারের প্রয়োজনে ফার্নিচার বানানো তার পেশার প্রধান অবলম্বন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সম্প্রতি কথা হয় চন্দন সূত্রধরের সঙ্গে। তিনি তুলে ধরেন একটি সুখী পরিবারের বসবাসের জন্য স্বাস্থ্যসম্মত টিনের ঘর নির্মাণের বিভিন্ন তথ্য।

চন্দন বলেন, ঝড়ের গতিবেগ থেকে টিকে থাকার জন্য টিনের ঘর চৌচালা হওয়া দরকার। চৌচালা ঘর বাতাস কাটতে পারে অনায়াসে। সেজন্য খুঁটির উচ্চতা রাখতে হবে ১২ ফুট। আর ঘরের সংযুক্ত-বারান্দার খুঁটির উচ্চতা হবে ৯ ফুট। ঘরটি লম্বায় ১৪ হাত, প্রস্থে সাড়ে ৮ হাত হতে হবে। ঘরে খুঁটি লাগবে ১৬টি আর বারান্দায় খুঁটি লাগবে ৬টি। খুঁটিগুলো হতে হবে পাকা বরাক বাঁশের অথবা ঢালাই সিমেন্টের। খুঁটির সঙ্গে সংযুক্ত কাঠের বা বাঁশের ধন্যা লাগবে ৬টি। যার দৈর্ঘ্য হবে ১৪ ফুট। আর কাঠের পাইর লাগবে ৩/২ ইঞ্চি পুরুত্বের ২৫ ফুট দৈর্ঘ্যরে ২টি। বারান্দায় ভেলকির প্রয়োজন হবে ঘরের আকৃতি অনুযায়ী। বারান্দাসহ পুরো ঘরটির ছাউনিতে স্ক্রুর প্রয়োজন পড়বে প্রায় ৩ কেজি।

তিনি আরও বলেন, যেহেতু ৪ সদস্যের বসবাসের ঘর, মাঝে একটি পার্টিশন বা বিভাজন হলে ভালো হয়। প্রতি বিভাজনের বিপরীতে সামনে ও পেছনে ৩/২ ফুটের ২টি করে মোট ৪টি জানালা এবং ৬/২.৫ ফুটের ১টি করে মোট ২টি দরজা সংযোজন করতে হবে। ঘরটির চালের ছাউনিতে ভালো মানের ৯ ফুট দৈর্ঘ্যরে টিন লাগাতে হবে। এজন্য এ-আকৃতির ২২টি টিন লাগতে পারে। আর বারান্দার ছাউনির জন্য ৭ ফুট দৈর্ঘ্যরে ১১টি টিন খরচ হতে পারে। টুয়া লাগবে ৬ ফুট দৈর্ঘ্যরে ৯টি। সিলিংয়ের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে বাঁশের তৈরি বেড়া। ঘরটি নির্মাণে বর্তমান বাজারে খরচ পড়বে সবনিম্ন ৬০ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকা।

কারিকা প্রতিবেদক

NO COMMENTS

Leave a Reply