Home অন্তর্জাতিক বিশ্বনন্দিত ১০ জল বাড়ি

বিশ্বনন্দিত ১০ জল বাড়ি

মাহেনাজ এম

তিন ভাগ জল আর এক ভাগ স্থলের এই পৃথিবীতে মানুষের আবাস যে স্থলেই সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু প্রতিনিয়ত পরিবর্তনের এই সময়ে জীবন যাপনেও এসেছে ব্যতিক্রম উদ্যোগ, আয়োজন। তাই মানুষ স্থলের পাশাপাশি জলেও আবাস-আয়োজন গড়তে উৎসাহী হচ্ছে। ১৯০০ সালে বা তারও কিছু আগে থেকে জলে বাড়ি তৈরির ভাবনা দানা বাঁধতে শুরু করে স্থপতিদের মধ্যে। আর তখন থেকেই গড়ে উঠতে শুরু করে সিয়াটল, ওয়াশিংটন ও পোর্টল্যান্ড অরিগানোর মতো জলভিত্তিক শহর। বহু বছর আগে থেকে জিম্বাবুয়ে, ইন্ডিয়া, লাওস ইত্যাদি দেশে পর্যটন আকর্ষণ, যাতায়াত বা আনন্দভ্রমণে নানা ধরনের বোটহাউজ ব্যবহার হয়ে আসছিল। ঐতিহ্যগতভাবে কিছু সম্প্রদায়ের লোক এখনও নৌকাতে বসবাস করে; পাশাপাশি বাণিজ্যিক মাপকাঠিতেও ভাসমান বাড়ির চাহিদা এখন ব্যাপক। বর্তমান সময়ের সবচাইতে আকর্ষণীয় ১০টি ভাসমান বাড়ির খোঁজ নিয়েই এই ফিচার। বিশ্বসেরা স্থপতিদের মনোমুগ্ধকর ডিজাইন আর সুনিপুণ নির্মাণশৈলী ভাসমান এই বাড়িগুলোকে করেছে পৃথিবীজুড়ে সমাদৃত।

জ্যাকস হাউজ বোট

jacks-houseboat-first-640x427-c

স্থপতি রোনাল্ড রফটের ডিজাইনে দক্ষিণ আমর্স্টারডামে এমস্টেল নদীর তীরে দেখা মেলে ভাসমান এ বাড়িটির। স্বচ্ছ পানির ধার বরাবর এ বাড়িটির মেঝে; লিভিং ও ডাইনিং এরিয়াতে মেঝে থেকে ছাদ-অব্দি সুবিশাল কাঁচের জানালা। শোবার ঘরের বাথরুমে আছে সানবাথের ব্যবস্থা। জ্যাক বীট ও তাঁর স্ত্রী তাদের এক বন্ধুর সাহায্যে রোনাল্ড রফটকে দিয়ে তাদের ভাসমান বাড়িটির ডিজাইন করিয়ে নেন; তারপর টানা দুই বছর ধরে নির্মাণ হয় অসাধারণ এই বাড়িটি।

দ্য ফেনাল রেসিডেন্স

the-floating-house-project-by-robert-harvey-oshatz-fennell-residence-2

স্থপতি রবার্ট হারভে অসাটসের অভিনব ডিজাইনে অরিগন শহরের উইলিমর্ট নদীতীরে পোর্টল্যান্ডে অবস্থান এই ভাসমান বাড়িটির। দ্য ফেনাল রেসিডেন্সের ভেতরের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে কাঠের বিমের ব্যবহার লক্ষণীয়। লিভিং ও ডাইনিং-রুমের সুপরিসর জানালা নদীর দিকে হওয়ায় সেখান দিয়ে নদীতে সুর্যাস্তের মোহময় দৃশ্য সরাসরি উপভোগ করা যায়। শোবার ঘরটি দোতলায় স্টাডিরুমের উপরে, সেখান থেকেও দেখা মেলে নদীর। অসাটসের অসাধারণ কারভেনেলিয়ান ডিজাইনের এই ভাসমান বাড়িটি আলো-ছায়ার খেলায় দিনের যেকোনো সময়ই চমৎকার দেখায়।

ট্রাউমফেঞ্জার

Traumfa__nger_1_03

মনোরম এই স্থাপনাটি স্থির বিধায় এটিকে ভাসমান বাড়ি না বলে বার্জ বলাই শ্রেয়। জার্মানির হ্যামবার্গ শহরে রস্ট নিডেরহ নামে এক আর্কিটেক্ট ফার্মের ডিজাইনে এটি তৈরি। আধুনিক এই বাড়িটিতে কাঠের ছাদ, পেছনের খোলামেলা পরিসর, শোবার ঘর এবং বাথরুম সবখানে মেলে আধুনিকতার সুস্পষ্ট ছাপ। ২০১১ সালে নির্মিত এ বাড়িটি মনোমুগ্ধকর ডিজাইন ও সুচারু নির্মাণশৈলীর জন্য পুরস্কৃত হয়। স্থানান্তরে টাগবোটের সাহায্য নিতে হয় বলে হ্যামবার্গ শহরের এইলবেক লেকের ওপর ভাসমান এই বাড়িটির সহসা ঠিকানা বদল হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

ওয়াটার ভিলা ডি হফ

watervilla-de-hoef-002-640x427-c

ডাচ আর্কিটেক্ট-ফার্ম ওয়াটার স্টুডিও এন এল শুধু ভাসমান বাড়িরই ডিজাইন করে থাকে, ওয়াটার ভিলা ডি হফের ক্ষেত্রেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। আধুনিক ডিজাইনের ভাসমান এই দোতলা বাড়িটি কোলাহল থেকে দূরে ছোট্ট শহরের পরিবেশে পুরোপুরি মানানসই। দোতলার সুপরিসর বসার ঘরের ছাদ থেকে মেঝে-অব্দি বিশাল জানালা বাড়িটিকে করে আলোকিত। বাইরে থেকে দেখলে ওয়াটার ভিলা ডি হফের জলঘেসা নীচতলার ছোট ডেকের সৌন্দর্য ভাসমান এই বাড়িটি মনে হয় যেন স্বপ্নপুরী।

এয়ারবিএনবি’ স আইডিয়াল-২

ideaal-ii-026-640x427-c

শহরের ব্যস্ততা থেকে মাত্র দেড় মাইল দূরত্বে ইস্টার্ন ডকল্যন্ড এলাকায় এয়ারবিএনবি’স আইডিয়াল-২-এর অবস্থান। মনোরম এই ভাসমান বাড়িটি ভাড়ায় পাওয়া যায়। ভাড়া তুলনামূলক কম হওয়ায় সাধারণ মানুষের উপভোগে জন্য এয়ারবিএনবি’স আইডিয়াল-২ আদর্শ। জলসংলগ্ন অপরূপ এই স্থাপনাতে আছে সুবিশাল শোবার ঘর, মার্বেল পাথরের মেঝের ওপর বাথটাব বসানো বাথরুম। রয়েছে ফায়ারপ্লেসের ব্যবস্থাও, যা শীতের সময় যোগ করে আরামপ্রদ উষ্ণতার এক নতুন মাত্রা। এয়ারবিএনবি’স আইডিয়াল-২ তে থাকাকালীন এর সুখ-সুবিধা আপনাকে বুঝতেই দেবে না যে আদতে আপনি একটি নৌকাতে আছেন!

লেক ইউনিয়ন ফ্লোটিং হোম

Lake-Union-Floating-Home-02

ভাসমান বাড়ির ইতিহাস বিবেচনায় ওয়াশিংটনের সিয়াটল আছে শীর্ষদের সারিতে। আর এই শহরের বিলাসবহুল চমৎকার সব ভাসমান বাড়ির তালিকায় শীর্ষ অবস্থানে আছে লেক ইউনিয়ন ফ্লোটিং হোম। ভানদেভেঞ্চার ও কারল্যান্ডার আর্কিটেক্টসের ডিজাইন করা আধুনিক এ ভাসমান বাড়িটি সিয়াটল লেক ইউনিয়নেও ওপর এমনভাবে তৈরি যে তা থেকে পুরো শহরের দৃশ্য উপভোগ করা যায়। বাড়িটির ডিজাইন এরকমই যে, উপরতলা ও বাইরের দিককার পরিসর সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত হলেও নীচতলার একান্ত পরিসরটুকু শুধুই বাড়ির মালিকের। পাথুরে দেয়াল ও অ্যালুমিনিয়াম প্যানেলের যুগলবন্দি, ছাদ থেকে মেঝে পর্যন্ত প্রশস্ত জানালা সব মিলে এই ভাসমান বাড়িটি অত্যন্ত মনোমুগ্ধকর। প্যাসেফিকের উত্তর-পূবে অবস্থিত এই বাড়িটিকে যথাযথ মজবুত করার জন্য এতে ব্যবহৃত হয়েছে ফাইবার সিমেন্ট প্যানেল, মজবুত ফ্রেমের জানালা ও বৃষ্টি প্রতিরোধক পর্দা।

ওয়াটার ভিলা ডি অমভেল

archi31

+৩১ আর্কিটেক্টের আধুনিক ডিজাইনের নান্দনিক স্থাপনা হিসেবে বিখ্যাত দ্য ওয়াটার ভিলা ডি অমভেলের অবস্থান আমর্স্টারডামের এমস্টেল নদীতীরে। ২,১০০ স্কয়ারফিটের ভাসমান এ বাড়িটির সামনের দিকের পুরোটাজুড়ে রয়েছে প্রশস্ত জানালা। বাড়ির যেকোনো কক্ষেই আপনি থাকুন-না কেন, সুবিশাল জানালাগুলো থেকে নদীর মনোরম দৃশ্য উপভোগ করতে পারবেন। এ বাড়িটির অন্দরসজ্জায় সাদা রং ব্যবহৃত হয়েছে, তার সঙ্গে কাঠের কারুকাজ, আধুনিক সরঞ্জামাদি সবকিছুর সমন্বয় ভাসমান এ বাড়িটিকে করেছে বিশ্বজুড়ে সমাদৃত।

আর্চ মড্যুলার হোম

best-houseboats-1500x1000

জার্মানিতে কৃত্রিমভাবে তৈরি চেইন লেক শহরের নাম লুসাসিয়ান ডিসট্রিক্ট; সেখানেই দেখা মিলবে স্টেলটেক-৩৭ নামক জার্মান আর্কিটেক্টচারাল ফার্মের ডিজাইনে তৈরি এই ভাসমান বাড়ির। বাড়িটির ছাদ নৌকার পালের মতো বাঁকা করে ডিজাইন করা। বাড়ির বাহির দিকে লম্বা স্লাইডিং জানালার ব্যবহার লেকের পানিতে আলো-ছায়ার খেলায় ভাসমান এ বাড়িটি অত্যন্ত কোমল দেখায়। অবকাশ যাপনে আদর্শ ভাসমান এ বাড়িটি প্রতিকুল আবহাওয়াতে টিকে থাকতে শক্তিশালী অ্যালুমিনিয়াম কাঠামোতে তৈরি, যা একই সঙ্গে এটিকে করেছে মজবুত ও দৃষ্টিনন্দিত। ব্রেনডেনবার্গের দক্ষিণ-ভাগে অবস্থিত এই বাড়িটি ভাড়ায় পাওয়া যায়, ফলে জার্মানিতে বেড়াতে আসা পর্যটকরা অবকাশ-যাপনে বাড়িটিকে বেছে নিতে পারেন।

দ্য পলেস ইন সিয়াটল লেক ইউনিয়ন

Sleepless Seattle

১৯৯৩ সালে আর্কিটেক্ট নোরা ইপরনের ডিজাইনে টম হ্যানক্স নামের এক ব্যক্তি ভাসমান এ বাড়িটি নির্মাণ করেন, যা বর্তমানে সিয়াটলের লেক ইউনিয়নে বেড়াতে আসা পর্যটকদের কাছে অন্যতম এক আকর্ষণ। ২,২৭০ স্কয়ারফিটের চারটি শোবার ঘর সম্বলিত বাড়িটির অন্দরসজ্জায় কাঠের বিম ও মেঝে আর সুবিশাল জানালার সুনিপুণ সমাহার এটিকে করেছে মোহময়। লেক ইউনিয়নের সবচেয়ে বড় ভাসমান এ বাড়িটির চলাচলপথও এ এলাকার অন্যান্য ভাসমান বাড়ির চাইতে বেশি। বাড়িটির চারদিক ঘিরে আছে প্রশস্ত বারান্দা। আরও আছে নৌকা বাঁধার ব্যবসা।

ভিলা ন্যাকরস

villa-nackros-007-640x427-c

সুইডেনের সাগরতীরের পূর্ব কোলঘেঁষে কালমার শহরে আধুনিক ডিজাইনের ভাসমান এ বাড়িটির অবস্থান। বাড়িটি থেকে সাগরজলে সূর্যাস্ত দেখার আনন্দের সঙ্গে নতুন মাত্রা যোগ করে ভিলা ন্যাকরসের প্রশস্ত পরিসর আর অসাধারণ ছাদের সৌন্দর্য। সৌন্দর্য-পিপাসুদের জন্য ছয়টি চমৎকার শোবার ঘর, আধুনিক সরঞ্জামাদি ও ছিমছাম রান্নাঘর সম্বলিত এ বাড়িটিতে অবকাশ যাপন হবে নিঃসন্দেহে এক স্বপ্নময় অভিজ্ঞতা। ১৬৫ টন ওজনের এই বাড়িটি এতোটাই মজবুত করে তৈরি যে ঝড়, প্লাবন বা ভাসমান বরফ খন্ড কোনোকিছুই একে টলাতে পারেনা। বাড়িটিতে আরও আছে ছোট বা মাঝারি আকারের নৌকা বেঁধে রাখবার জন্য অ্যালুমিনিয়ামের দৃঢ় কাঠামো। নীচতলায় ১,৯০০ স্কয়ারফিট পরিসর ছাড়াও ছাদের ওপর আনুমানিক আরও ১,০০০ স্কয়ারফিট পরিসরে করা হয়েছে চমৎকার এক বাগান।

NO COMMENTS

Leave a Reply